কান্তজিউ মন্দির । বাংলাদেশের প্রাচীন মন্দির । রাজা সহিদুল আসলাম । Kantajiw Temple । Oldest Temple of Bangladesh ।

0
844

কান্তজিউ মন্দির

রাজা সহিদুল আসলাম

বাংলাদেশের মধ্যে প্রাচীন মন্দির হলো কান্তজিউ মন্দির। এর আরও একটি নাম রয়েছে – নবরত্ন মন্দির। তবে কান্তজিউ মন্দির নামেই এখন পরিচিত। এটির অবস্থান দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলার সুন্দরপুর ইউনিয়নে। দিনাজপুর – ঠাকুরগাঁও মহাসড়কের পাশেই এর অবস্থান। বর্তমানে এর যোগাযোগ ব্যবস্থা খুব ভাল। রংপুর থেকে রওয়ানা হয়ে বা দিনাজপুর থেকে রওয়ানা হয়ে দশ মাইল নামক জায়গা পার হয়ে মাত্র চার কিলোমিটার এলেই দেখা মিলবে এই মন্দিরের। অর্থাৎ দশ মাইল থেকে এসে কান্ত নগর নামক লোকাল বাস স্টপেজে নামতে হবে। তারপর রাস্তার পশ্চিম পাশের রাস্তা ধরে এগুলেই এক/দেড় কিলোমিটার পরেই কান্তজিউ মন্দির। তবে মহাসড়কের সঙ্গেই একটি বড় ভাষ্কর্য পাওয়া যাবে। সেখানেই দেওয়া আছে প্রত্নতত্ব অধিদপ্তরের নির্দেশনা। যাওয়া খুব সহজ। মন্দিরের সঙ্গে রয়েছে পর্যটনের রেস্তোরাঁ। অনেক সুযোগ সুবিধা প্রস্তুত হয়েছে এরই মধ্যে। একজন পর্যটকের তেমন কোনো অসুবিধাই হবেনা।
কান্তজিউ মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন মহারাজা প্রাণ নাথ। ১৭২২ খ্রিস্টাব্দে এর নির্মাণ শুরু করেন তিনি। তবে তিনি তাঁর জীবদ্দশায় মন্দিরের কাজ সমাপ্ত করে যেতে পারেনি। এর কাজ সমাপ্ত করেন তাঁর পালক পুত্র রাম নাথ। ১৭৫২ খ্রিস্টাব্দে।
তিন তলা বিশিষ্ট এই মন্দির অতি শিল্প মণ্ডিত এবং সুন্দর। কান্তজিউ মন্দিরের বিশেষত্ব রয়েছে। মন্দিরের বর্হিবিভাগের দেয়াল সাদামাটা পলেস্তরা সম্বলিত নয়। টেরাকোটা দ্বারা বেষ্টিত। টেরাকোটায় বর্ণিত হয়েছে রামায়ণ-মহাভোরতের কাহিনী এবং সেই সময়ের ঐতিহাসিক কিছু ঘটনা। ফলকচিত্রগুলোও ভীষণ ণিপুনভাবে তৈরি করা হয়েছে। প্রায় পনের হাজার টেরাকোটা এই কান্তজিউ মন্দিরে ব্যবহার করা হয়েছে। আঠার শতকের স্থাপত্য শৈলির এক বিশেষ নিদর্শন। কান্তজিউ মন্দির যেমন পুরনো তেমনি এর টেরাকোটার শৈলি যে কোনো পর্যটককে আকর্ষণ করবে।
কান্তজিউ মন্দিরের আরেকটি নাম ছিল – নবরত্ন মন্দির। এই মন্দিরের নয়টি গম্বুজ বা চূড়া ছিলো। কিন্তু ১৮৯৭ খ্রিস্টাব্দের ভূমিকম্পে এই চূড়াগুলো ভেঙে যায় যা পরবর্তীতে সংস্কার করা সম্ভব হয়নি। সে সময় এর উচ্চতা ছিল ৭০ ফিট। চূড়া ধ্বংসের পর বর্তমানে এর উচ্চতা ৫০ ফিফট। চারকোণা কান্তজিউ মন্দিরটি একটি ঊঁচু বেদির উপর নির্মিত। প্রতি বছর এখানে রাস মেলা হয়ে থাকে। সে সময় এখানে বিভিন্ন এলাকা থেকে অনেক মানুষ আসেন। তখন মাস ব্যপী মেলা বসে।
নিচে টেরাকোটা এবং মন্দিরের ছবি দেয়া হলো। এই ছবিগুলো তুলেছেন রাজা সহিদুল আসলাম।

টেরাকোটা

মন্দিরের শিলা লিপি

মন্দিরের খিলানের স্তম্ভ

আরও টেরাকোটা

কান্তজিউ মন্দিরের পেছনে আরও একটি ছোট মন্দির রয়েছে –

অনুমতি ছাড়া এইসব ছবি কেউ ব্যবহার করবেন না।

কান্তজিউ মন্দিরের ভিডিও দেখুন, নিচের লিংকে ক্লিক করুন –

http://bit.ly/2Bu03g4

২০০ বছরের পুরাতন সমজিদের ভিডিও দেখুন, সৈয়দপুরে অবস্থিত, নিচের লিংকে ক্লিক করুন –

http://bit.ly/2yhUrSG

—–////—–

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here